sasthoseba.com

First Health News site in Bangladesh

‘রাজকাহিনী’র ট্রেলারেই মাতালেন জয়া আহসান

এক তুড়িতে ভাগ করে দিলো পাঁচ হাজার বছরের সভ্যতাকে। ঘরছাড়া হলো কোটি মানুষ।

ভিটে ছেড়ে; প্রতিবেশী, প্রিয় গাছটা, পরিচিত উঠোন, মুখস্ত ঠিকানা ছাড়িয়ে সীমানা হিসেব পথে নামালো মানুষকে। করলো ঠিকানাহীন, গৃহহীন। পথে পথে দাঙ্গা, খুন। সারি সারি মানুষের দল হাঁটে, পালায়; নতুন ঠিকানার সন্ধানে। ও দলে অশীতিপর বৃদ্ধা আছে, পোয়াতি গৃহবধূ, শিশু, স্কুলের মাস্টার, খেটে খাওয়া কৃষক।সাল ১৯৪৭। পার্টিশন। এটাই সৃজিত মুখার্জির ‘রাজকাহিনী’র প্রেক্ষাপট। সৃজিতের নারী চরিত্রগুলো তখনই প্রতিবাদী হয়ে ওঠে, যখন সীমারেখার হাত থেকে রেহাই পায় না তাদের আশ্রয়টিও।

joya011

অর্ডার আসে, ‘বাড়ি খালি করে দিতে হবে। বাড়ির মধ্য দিয়ে হিন্দুস্তান-পাকিস্তানের সীমান্ত যাবে।’বাড়িটি বেগম জানের। বেগম জান পতিতাদের সর্দার। ওখানে দশটি নারী চরিত্র থাকে, একজন বৃদ্ধা, শিশুও আছে। তাদের একজন রুবিনা, জয়া আহসান। ১৪ আগস্টের একেবারে শেষপ্রান্তে, মধ্যরাতে প্রকাশ পেয়েছে ‘রাজকাহিনী’র ট্রেলার। এতে জয়াকে দেখা গেলো একেবারে ভিন্নরূপে। ধীর, শান্ত অথচ দৃঢ় জয়া আহসান। পার্টিশনের শিকার যখন তাদের বাড়িটি, হাতে অস্ত্র তুলে নেন।

যখন বলেন, ‘এই লড়াইয়ের শেষ না দেখে আমি নড়বো না’; মনে হয়, এই জয়াকে আগে কখনও দেখেনি কেউ।আসছে পূজায় ‘রাজকাহিনী’ মুক্তি পাবে।

Updated: August 15, 2015 — 2:34 pm

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

sasthoseba.com © 2014 Sasthoseba